প্রেসার কুকারে রান্না করা খাবার কী সত্যিই উপকারী?

আমাদের অনেকেরই বাড়িতে প্রেসার কুকার ব্যবহার হয় রান্নার জন্য। তবে এ বিষয়ে অনেকে বলে থাকেন যে প্রেসার কুকারে খাবার রান্না করলে নাকি তার নিউটেশন এবং গুণগত সব বৈশিষ্ট্য নষ্ট হয়ে যায়। আমরা সকলে জানি প্রেসার কুকারের ভেতর উচ্চ বায়ু প্রেসারআইস করে তার উপর তাপমাত্রার পরিবহনের মাধ্যমে খাবার রান্না করা হয় এক্ষেত্রে খুব তাড়াতাড়ি খাবার তৈরি হয়ে থাকে। সাধারণত এই কারণেই অর্থাৎ তাড়াতাড়ি খাবার তৈরি হয়ে যাওয়ার ঘটনার জন্যই অনেকে প্রেসার কুকার ব্যবহার করে থাকেন। তবে যেমন আগে বলা হল, অনেকেই ভাবেন যে প্রেসার কুকারে রান্নার নিউট্রিশন নাকি কম, কিন্তু অনেক বৈজ্ঞানিকদের মতে খাবার সিদ্ধ করে খেলে নাকি তা নিউটেশন বজায় থাকে এবং প্রেসার কুকারে খুব তাড়াতাড়ি রান্না তৈরি হয়ে যায় বলে নিউট্রেশন হারানোর জন্য সময় থাকে খুব কম।

প্রেসার কুকারে রান্না করা বিভিন্ন দ্রব্যের ক্ষেত্রে ফল বিভিন্ন রকম হয়। যেমন যদি চাল সেদ্ধ করা হয় অর্থাৎ প্রেসার কুকারে সাহায্যে ভাত রান্না করার সময় তা সাধারণের থেকে বেশি ভারী হয়, অন্যদিকে প্রেসার কুকার এর সাহায্যে মাংস সেদ্ধ করলে তা খুব সহজে হজম হয়ে যায়। কিন্তু প্রেসার কুকার এর কুফল নিয়ে আলোচনা করতে হলে এবং গবেষণা কর দেখা গেছে যে প্রেসার কুকারে যদি স্টার্চ জাতীয় ফুড যেমন আলু, পাস্তা , নুডলস, বিনস ইত্যাদি সেদ্ধ করা হয় তবে তা থেকে একটি বিষাক্ত কেমিক্যাল নির্গত হয় যার নাম অ‍্যাক্রিলামাইন। এ রাসায়নিক দ্রব্য টি যদি প্রতিদিন শরীরে যায় তবে ক্যান্সার, নিউরনজনিত সমস্যা ইত্যাদি হতে পারে।


অপরদিকে আরেকটি গবেষণায় জানা গেছে প্রেসার কুকারে তৈরি করা রান্নায় লেকটিন এর পরিমাণ কমে যায়। লেকটিন এমন একটি বিষাক্ত কেমিক্যাল যা খাদ্যের গুণগত মান কমিয়ে দেয়। সে দিক থেকে দেখতে হলে প্রেসার কুকারে তৈরি করা রান্নায় গুণগত মান বেশি তাই বিশেষ কোনো ক্ষতির আশঙ্কা থাকে না সাধারণের তুলনায়।বর্তমান যুগের আরো একটি সমস্যা হল জ্বালানির সমস্যা প্রেসার কুকারে রান্না করলে সময় কম লাগে এবং জ্বালানি ও কম খরচা হয় এটি একটি দেখার বিষয়।

Related Articles

Open

Close